Home Automation

complete building automation

হোম অটোমেশন কি এবং কেন হোম অটোমেশন প্রয়োজন !!!

হোম অটোমেশন সিস্টেম, যা একটি বাড়ির তিনটি মূল অংশ- হিটিং সিস্টেম, লাইটিং সিস্টেম এবং সিকিউরিটি কন্ট্রোল সিস্টেম সহ সংশ্লিষ্ট ডিভাইসগুলোকে স্মার্ট উপায়ে নিয়ন্ত্রণ করে। স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিয়ন্ত্রিত হয় বলে একে হোম অটোমেশন সিস্টেম বলা হয়। হোম অটোমেশন প্রযুক্তি ব্যবহার করে হোম নেটওয়ার্কিংয়ের মাধ্যমে একটি বাড়ির নিরাপত্তা, বহির্বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা, হোম এন্টারটেইনমেন্ট ইত্যাদি প্রতিটি সিস্টেম আলাদা আলাদাভাবে নিয়ন্ত্রণ এবং একই সঙ্গে এগুলোর সমন্বয় সাধন করা যায়। হোম অটোমেশন এর মাধ্যমে অফিস কিংবা বাড়ীর সবধরনের বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি প্রচলিত সুইচ এর বদলে সংক্রিয়ভাবে এবং প্রয়োজনে স্মার্ট ফোন থেকেও নিয়ন্ত্রণ করা যায়। IOT (Internet of Things) নির্ভর হোম অটোমেশন প্রযুক্তিতে, প্রচলিত বৈদ্যুতিক ব্যবস্থার সাথে স্মার্ট ডিভাইস সমুহ WI-FI ইন্টারনেট এর সাথে সংযোগ স্তাপনের মাধ্যমে স্মার্ট উপায়ে সার্বিক বৈদ্যুতিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে সুইচ বাটনে কোন স্পর্শ ছাড়াই।

(উদাহরণস্বরূপ, আপনি একটি রুমে পায়চারি করছেন তখন সয়ংক্রিয় ভাবে আপনার পর্দা খোলা হবে, তাপমাত্রা চালু হবে, এবং আপনার প্রিয় গান বাজানো শুরু হবে)

বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হোম অটোমেশন প্রযুক্তি জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন এর পাশাপাশি সর্বচ্চো নিরাপত্তা বিধান করে থাকে । হোম অটোমেশন প্রযুক্তির সুবিধা অনেক।

বিদ্যুৎ সাশ্রয়ঃ

হোম অটোমেশন সিস্টেম পৃথক ডিভাইসের শক্তি ব্যবহারের পরিমাপ করতে পারে, আপনার একটি পুরানো হোম আপ্লাইন্স খুব বেশি বিদ্যুৎ খরচ করে কিনা তা বের করতে পারবেন অনায়াসেই এতে করে বেশি বিদ্যুৎ বিল উৎপাদনকারি বৈদ্যুতিক লোড সমূহ বদলে স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহার করে ২০-৯০ % বিদ্যুৎ খরচ সাশ্রয় করা যায়।

তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রনঃ

গ্রীষ্মের তীব্র তাপদাহে বাইরে থেকে এসে সাথে সাথে এসি অন করলেও আরামদায়ক তাপমাত্রা পেতে কিছুক্ষণ দেরি হয় কিন্তু হোম অটোমেশন এর মাধ্যমে বাড়ীর কাছাকাছি এসে স্মার্ট ফোন এর মাধ্যমে আগে থেকেই এসি অন করে দেয়া যায় এতে বাড়ি ফিরেই আরামদায়ক তাপমাত্রা পাওয়া যায়।

পানির অপচয় রোধঃ

পাম্প অটোমেশন এর মাধ্যমে পানির অপচয় রোধ করে বিদ্যুৎ খরচ কমানো যায়, রুফটপ ট্যাঙ্কি এবং রিসার্ভ ট্যাঙ্কিতে স্মার্ট ডিভাইস সংযোগের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয় পানির সরবরাহ নিরবিচ্ছিন্য করা যায় এরফলে ট্যাঙ্কি ওভারফ্লো হয়ে পানির অপচয় হয়না কিংবা অপ্রয়োজনীয় ভাবে পাম্প চলে বিদ্যুৎ খরচ হয়না।

বাড়ি পর্যবেক্ষণঃ

বাড়ীর বাইরে থেকেও স্মার্ট ফোন থেকে সার্বক্ষণিক বাড়ীর তদারকি করা যায়, হোম অটোমেশন সিস্টেমে নিরাপত্তা ক্যামেরাগুলি মোশন ডিটেকসান পন্থায়, বাড়ীর বাহ্যিক এবং আভ্যন্তরীণ কার্যক্রম সম্পর্কে মালিককে সিগনাল পাঠায়, এমনকি বাড়ীর দরজায় অতিথি আসলে বাড়ীর বাইরে থেকেও দরজা খুলে দেয়া যায়।

বাচ্চাদের পর্যবেক্ষণঃ

চাকরীজীবী বাবা মায়েদের বাসায় রেখে যাওয়া সন্তানদের নিয়ে দুশ্চিন্তার অবসান ঘটাবে হোম অটোমেশন সিস্টেম। আপনার নেটওয়ার্কে সংযুক্ত ভিডিও ক্যামেরা এবং একটি স্মার্টফোনের অ্যাপ ব্যবহার করে, আপনি যখন বাড়িতে থাকেন না তখন বাচ্চারা কী করছে তা দেখতে পাবেন। এছারাও ক্যমেরাতে ব্যবহৃত ২ ওয়ে মাইক্রোফোনের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক ভয়েছ আদান প্রদান করতে পারবেন মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করেই।

তালা চাবির ঝামেলা বিহিন নিরাপত্তা ব্যবস্থাঃ

বাসার চাবি হারিয়ে গেল কিনা কেন্দ্রিক চিন্তা করতে হবে না আর। এখন চাইলেই ইলেক্ট্রনিক ডোর লক এর সংখ্যাসূচক কীপ্যাড এবং হোম অটোমেশন সিস্টেমের সমন্বয়ে স্মার্টফোনের অ্যাপ্লিকেশন মাধ্যমে দরজা আনলক করতে সক্ষম হবেন।

নিছিদ্র নিরাপত্তাঃ

বাসা থেকে বেরিয়ে গেছেন তাড়াহুড়োই হইতো ডোর লক করতে ভুলে গেছেন, চিন্তার কিছু নেই হোম অটোমেশন সিস্টেমের আপনার বাড়ীর সবগুলো তালা স্মার্ট ফোন থেকেই বন্ধ করতে পারবেন। হাজার মাইল দূরে থেকেও ডোর লক গুলো পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন।

সময় সচেতনতাঃ

ব্যবহৃত হোম আপ্লাইন্স সমূহ অচল হয়ে যাওয়ার আগেই রক্ষণাবেক্ষণ সম্পর্কে সতর্ক করে দেবে হোম অটোমেশন সিস্টেম। যেমন প্রিপেইড বৈদ্যুতিক মিটার এর টাকা শেষ হওয়ার আগেই সতর্ক করবে হোম অটোমেশন সিস্টেম।

ছোট যন্ত্রপাতি নিয়ন্ত্রণঃ

আপনি সম্ভাব্য চোরকে বোকা বানাতে পারেন। ছুটিতে যাচ্ছেন? কোন সমস্যা নেই দূর থেকে চোর ভাববে আপনি বাড়িতেই আছেন। দূরে থেকেও প্রতি রাতে লাইটিং সিস্টেম অন অফ করার প্যাটার্ন সক্রিয় রেখে অনাকাঙ্ক্ষিত চুরি রোধ করা সম্ভব। এছাড়া দূর থেকেও টিভি ,হোম থিয়েটার অপারেট করা যায় হোম অটোমেশন প্রজুক্তি ব্যবহার করে।

অজাচিত অনুপ্রবেশ রোধকরণঃ

বাড়ীর চারপাশে মোশন ডিটেকশন লাইটিং ও মোশন ডিটেকশন অ্যালার্ম এর সাথে হোম অটোমেশন সিস্টেম এর সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রপার্টিতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে অজাচিত অনুপ্রবেশ রোধ করা যায়।

একটি স্মার্টফোনের অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে হোম এপাইন্স সমূহ ভয়েস কমান্ড করে অপারেট কিংবা হোম অটোমেশন সিস্টেমের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য সক্রিয় করার সুযোগ অবিশ্বাস্যভাবে সুবিধাজনক হতে পারে এবং সময়ের সাথে আপনার বিদ্যুৎ খরচ কমাতে এটি একটি কার্যকরী ভুমিকা রাখবে।